শুক্রবার , জুলাই ৩০ ২০২১
Home / জাতীয় / গাজীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিলো প্রশাসন।

গাজীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিলো প্রশাসন।

 

রোমান আহমেদঃ গাজীপুর (প্রতিনিধি)

ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর সড়ক বিভাগের আওতাধীন ঢাকা- ময়মনসিংহ মহাসড়কের রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তা হতে জৈনা বাজার (নাসির গ্লাস) পর্যন্ত (৩৫তম – ৫৬তম) কিলোমিটার রাস্তার দুই পাশের সকল অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিলো প্রশাসন।

মঙ্গলবার (১৫) জুন ২০২১ ইং।
সকাল ১১টা থেকে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার জৈনা বাজার হতে এই অভিযান শুরু হয়। যা পর্যায়ক্রমে রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত চলবে।চলমান অভিযানের সময় থাকবে মোট তিনদিন (১৫,১৬,১৭)।
সকাল থেকেই (উপ সচিব) সম্পত্তি ও আইন কর্মকর্তা কামরুজ্জামান মিয়ার উপস্থিতিতে প্রশাসনের সহায়তায় সড়কের দুই পাশের সকল অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেওয়া হয়।
এর আগে গত ০৩ জুন ২০২১ ইং বৃহস্পতিবার, গাজীপুর সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী, সওজের কার্যালয় থেকে এক গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বলা হয়, গাজীপুর সড়ক বিভাগের ঢাকা( বনানী)- জয়দেবপুর – ময়মনসিংহ জাতীয় মহাসড়কের ৩৫তম কিঃমিঃ (রাজেন্দ্রপুর মোড়) হতে ৫৬তম কিঃমিঃ জৈনা বাজার( নাসির গ্লাস) পর্যন্ত মহাসড়কের উভয় পাশের সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের অধিগ্রহণকৃত মহাসড়কের পাশে অবৈধভাবে নির্মিত সকল অবৈধ স্থাপনা ১৪ ই জুনের মধ্যে নিজ নিজ খরচে সরিয়ে নিতে।
অতপর ১৫ ই জুন মঙ্গলবার সকালে সড়কের পাশে থাকা অবৈধ স্থাপনাগুলো অভিযান চালিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়।

এসময় সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের অধিগ্রহণকৃত জায়গা দখল করে নির্মিত ছোট-বড় ভবন ও ফুটপাতের দোকানপাটসহ সকল অবৈধ স্থাপনা ভেকু দিয়ে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। উচ্ছেদ অভিযানে প্রশাসনের মধ্যে ছিলেন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা, জেলা পুলিশ, শ্রীপুর থানা ও মাওনা হাইওয়ে থানার পুলিশ সদস্যসহ ফায়ার সার্ভিস ও পল্লী বিদ্যুৎ কর্মীরা।

এবিষয়ে জানতে চাওয়া হলে উপস্থিত থেকে কামরুজ্জামান মিয়া (উপ সচিব) সম্পত্তি ও আইন কর্মকর্তা ও (নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট) সড়ক ও হাইওয়ে বিভাগ
গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন মহাসড়কের পাশে সওজের সম্পত্তি যেখানে প্রতিনিয়ত অবৈধভাবে গড়ে উঠেছিলো অনেক স্থাপনা, যা সড়ক বিভাগের নিয়মের বাহিরে। সড়ক বিভাগে নিয়ম অনুযায়ী সরকারি নির্দেশেই মহাসড়কের উভয় পাশে দখল কৃত সরকারি যায়গা উদ্ধার অভিযান চলছে, যা পর্যায়ক্রমে ৩ দিন চলমান থাকবে। পরবর্তীতে স্থাপনা তৈরি হলে আইন অনুযায়ী উদ্ধার ও উচ্ছেদ অভিযান চলবে। এই অভিযান জৈনা বাজার থেকে শুরু হয়ে রাজেন্দ্রপুর পর্যন্ত চলমান থাকবে। এসময় জৈনা বাজার সরকারি তালিকা ভুক্ত কোনো বাজার কিনা এবং এখানে ইজারা দেওয়া হয় কিনা জানতে চাওয়া হলে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন এই সম্পত্তি সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের যার কোনো ইজারা দেওয়া হয়না সওজের জায়গায় বাজার বসানোর কোনো নিয়ম বা ক্ষমতা কারো নেই। পরবর্তীতে যেই এই অবৈধ স্থাপনা তৈরি করার চেষ্টা করবে তার বিরুদ্ধে জেল জরিমানা সহ আইনানুগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। পাশাপাশি কেউ ইজারা দিচ্ছে কিনা এবিষয়ে আমার জানা নেই অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইননুসারে সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Check Also

গাজীপুর শ্রীপুরে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তির বিষয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে সাংবাদিক ও ছাত্রলীগ সভাপতি আটক।

রোমান আহমেদঃ স্টাফ রিপোর্টার গাজীপুরের শ্রীপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ছাত্রলীগ এবং বাংলাদেশ পুলিশের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: